Breaking

Friday, June 8, 2018

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি বাতিল করবেন যেভাবেঃ নিয়ম দেখুন

১৭-১৮ এর যারা ভর্তি বাতিল করতে ইচ্ছুক তারা পড়ুন:

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় অনার্স ও মাস্টার্স রেগুলেশনের "৪ নং এর ক" ধারা ও ডিগ্রী রেগুলেশনের "৫ নং এ ক" ধারা মোতাবেক দ্বৈত ভর্তি সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। কেউ এরূপ কাজ করলে তার রেজিষ্ট্রেশন বাতিল সহ পরীক্ষার ফলাফল পর্যন্ত বাতিল করার ক্ষমতা বিশ্ববিদ্যালয় সংরক্ষন করে থাকে।
তাই অবশ্যই পূর্বের ভর্তি বাতিল করেই জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে নতুন কোন কোর্সে ভর্তি হবেন।

ভর্তি বাতিল যেভাবে :

শিক্ষার্থী ক) কলেজ; খ) বিশ্ববিদ্যালয়; গ) অনলাইন ব্যবহারের মধ্যমে ভর্তি বাতিল করতে পারে।
তবে এনইউর সব কাজ এখন অনলাইন নির্ভর, তাই উপরের "ক বা খ" উভয় দফায় আবেদনও দিন শেষে অনলাইনের মধ্যমেই সম্পন্ন হবে।

যখন কলেজকে টাকা দেয়া হবে তখন তারাই অনলাইনের নিয়মকানুন সম্পন্ন করবে, আর বিশ্ববিদ্যালয় এ গেলে সেখানকার বাহিরের সাইবার ক্যাফে থেকেই আবেদন করতে হবে।

কলেজ কর্তৃক ভর্তি বাতিলের ক্ষেত্রে দেখা যায় টাকা নিয়েও কাজ না করে ফেলে রাখে, যার ফল শিক্ষার্থীকে ভোগ করতে হয়, অন্তত এমন ২ টি ঘটনার সাক্ষি জাবি ফেসবুক পরিবার।

তাই অনলাইনে নিজে ভর্তি বাতিল আবেদন করাটাই সবচেয়ে best,  এর ফলে আবেদনের ফলাফল সম্পর্কে শিক্ষার্থী নিজেও নিশ্চিত থাকতে পারে।

অনলাইনে ভর্তি বাতিল :
এর জন্য সর্বপ্রথম একটু স্টুডেন্ট একাউন্ট খুলতে হবে হতে। এর জন্য জাবি ওয়েবসাইটে গিয়ে service > students id তে গিয়ে একাউন্ট খুলবেন।

একাউন্ট খুলতে লাগবে "অনার্স/মাস্টার্স/ডিগ্রী" যে কোর্সে আপনি পড়েন তার রেজিষ্ট্রেশন নম্বর।
রেজিষ্ট্রেশন কার্ড না থাকলে Admission From এর কপি।

একাউন্ট আপডেটের পর একাডেমিক ম্যানু হতে "এডমিশন ক্যান্সেল" নির্বাচন করলে এডমিশন ক্যান্সেল ফরম চলে আসবে।

তাতে যথাক্রমে ১) ফরওয়ার্ডিং লেটার ; ২) রেজিষ্ট্রেশন কার্ড ; স্ক্যান করে attached করবেন এবং ভর্তি বাতিলের কারন লিখে তা submit করবেন।
এরপর ভর্তি বাতিল ফি প্রদানের জন্য একটি Pay slip বা ব্যাংক রশিদ তেয়া হবে। তা প্রিন্ট করে সোনালী ব্যাংকের যে কোন শাখায় জমা দিবেন।
বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক নির্ধারিত ফি ৭০০/- ও ৪৬/- ভ্যাট।ঠিকা : কলেজকে তাদের বকেয়া পাওনা পরিশোধ করতে হবে।

যদি কারো রেজিষ্ট্রেশন সম্পন্ন হবার আগেই ভর্তি বাতিল করতে হয় :
সেক্ষেত্রে এ যেয়ে New Student Registration সিলেক্ট করে তা যথাযত ভাবে পূরণ করে ভর্তির "Admission From" টা সাবমিট করুন।
এর দুই-এক দিনের মধ্যেই আপনার ইমেইলে এনইউর আইটি বিভাগ হতে খন্ডকালীন ব্যবহারের জন্য একটি একাউন্ট নম্বর ও পাসওয়ার্ড দিবে। তা দিয়ে লগইন করে উপরের নিয়ম অনুসারে আবেদন করে ফেলুন।
আবেদনের পর টাকা পা্রয়ার ৭ থেকে ১৫ দিনের মধ্যেই ভর্তি বাতিল করে একটি "Letter" দিবে, এ লেটার প্রাপ্তি মানেই ভর্তি বাতিল কার্যক্রম সম্পস্ন।

ফরওয়ার্ডিং : বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিন বরাবর কলেজ অধ্যক্ষের লেখা পত্র। এ পত্রে অধ্যক্ষের সিলমোহর ও সিগনেচার থাকতে হবে।

ভর্তি বাতিল সংক্রান্ত সমস্যা এড়াতে নিচের কাগজ গুলো সংরক্ষন করে রাখুন :
@ ডমিশন ফরমের স্টুডেন্ট কপি
@ ভর্তি বাতিলের জন্যে ব্যাংকে টাকা জমা দেয়ার রশিদ
@ অনার্স/ডিগ্রীর রেজিষ্ট্রেশন কার্ডের মূলকপি
@ ভর্তি বাতিল অনুমোদন চিঠি।




এমন আরো পোস্ট পেতে আমাদের ফেসবুক গ্রুপে জয়েন করুন
Join

No comments:

Post a Comment

close