Breaking

Thursday, October 4, 2018

চাকরির পরীক্ষায় বাংলাদেশ নিয়ে যত প্রম্ন দেখে নিন এক নজরে


১.বাংলাদেশের বর্তমান রাষ্ট্রপতি কততম.?= ২১ তম
২.বাংলাদেশের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী কততম.?= ১৪ তম
৩.বাংলাদেশের বর্তমান প্রধান বিচারপতি কে এবং কত তম?= সৈয়দ মাহমুদ হোসেন ২২ তম
৪.বর্তমানে বাংলাদেশের নির্বাচন কমিশনার কে এবং কত তম.? =কে এম নুরুল হুদা ১২ তম
৫.বাংলাদেশের বর্তমান স্পিকারের নাম কি.? = শিরীন শারমিন চৌধুরী , ১০ম সংসদ
৬.বর্তমানে বাংলাদেশের ব্যাংকের গর্ভনর কে, কত তম.? =ফজলে কবির , ১১ তম
৭.বর্তমানে বাংলাদেশের এনবিআর এর চেয়ারম্যান কে? = মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া
৮.নতুন আইজিপির নাম কি? = মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী
৯.বর্তমানে বাংলাদেশের অর্থ সচিব কে?= মুসলিম চৌধুরী
১০.বর্তমানে ঢাবির উপাচার্য কে? = অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামান ২৮ তম
চাকুরীর পরীক্ষায় বারবার আসে:-
★বাংলাদেশের প্রথম পতাকা উত্তোলন করা হয়.?
২_মার্চ_১৯৭১
★বঙ্গবন্ধুকে জাতির জনক ঘোষণা করা হয়.?
৩_মার্চ_১৯৭১ সালে
★স্বাধীন বাংলাদেশর বেতার কেন্দ্র স্থাপিত করা হয়.?
২৬_মার্চ_১৯৭১_সালে
★ভারত বাংলাদেশ যৌথ বাহিনী গঠিত হয়.?
২১_নভেম্বর_১৯৭১_সালে
★মুক্তিযুদ্ধে প্রথম শত্রুমুক্ত হয় যশোর জেলা.?
৭_ডিসেম্বর_১৯৭১_সালে
★বাংলাদেশ ব্যাংক প্রতিষ্ঠা লাভ করে.?
১৬_ডিসেম্বর_১৯৭১
★অপারেশন জ্যাকপট পরিচালনা করা হয়.?
১৫_আগস্ট_১৯৭১_সালে
::::::::→::::::::::::::→:::::::::

উৎসর্গ
❁ বসন্ত — রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর উৎসর্গ করেন কাজী নজরুল ইসলামকে।
❁ তাসের দেশ — রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর উৎসর্গ করেন নেতাজি সুভাষ চন্দ্রকে।
❁ কালের যাত্রা — রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর উৎসর্গ করেন শরৎচন্দ্র চট্টোপ্যাধায়কে।
❁ চার অধ্যায় — রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর উৎসর্গ করেন কারাবন্দীদের।
❁ সঞ্চিতা — কাজী নজরুল ইসলাম উৎসর্গ করেন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে।
❁ ছায়ানট — কাজী নজরুল ইসলাম উৎসর্গ করেন মুজাফফর আহম্মদকে।
❁ অগ্নিবীণা — কাজী নজরুল ইসলাম উৎসর্গ করেন বারীন ঘোষকে।
❁ চিত্তনামা — কাজী নজরুল ইসলাম উৎসর্গ করেন বাসন্তী দেবীকে।
❁ সর্বহারা — কাজী নজরুল ইসলাম উৎসর্গ করেন বিরজা সুন্দরীকে।
❁ সন্ধ্যা — কাজী নজরুল ইসলাম উৎসর্গ করেন মাদারীপুরের শান্তি সেনা ও বীর সেনাদের
# সাধারণ জ্ঞান (৫০): বাংলাদেশ
-------------------------------------------
নদী ও চর :
1. বাংলাদেশে ছোট বড় নদী রয়েছে - ৭০০ টি
2. পদ্মা নদী ভারতে পরিচিত – গঙ্গা নামে
3. পদ্মা নদীর উৎপত্তিস্থল – হিমালয়ের
গাঙ্গোত্রী হিমবাহে
4. গঙ্গা বাংলাদেশে প্রবেশ করে – রাজশাহী
জেলা দিয়ে
5. পদ্মা নদী যমুনার সাথে মিলিত হয় – গোয়ালন্দে
6. ব্রক্ষপুত্রের প্রধান ধারা – যমুনা নদী
7. পদ্মা নদী মেঘনার নাথে মিলিত হয় – চাঁদপুরে
8. পদ্মার শাখা নদী সমূহ – ভাগীরথী, হুগলি,
মাথাভাঙ্গা, ইছামতি, ভৈরব, কুমার, কপোতাক্ষ, নবগঙ্গা,
চিত্রা, মধুমতী, আড়িয়াল খাঁ
9. ব্রক্ষপুত্রের উৎপত্তি – তিব্বতের মানস
সরোবর
10. বক্ষপুত্র নদী বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে
– কুড়িগ্রাম জেলার মধ্য দিয়ে
11. ১৭৮৭ সালের আগে ব্রক্ষপুত্রের প্রধান ধারাটি
প্রবাহিত হতো – ময়মনসিংহের মধ্যে দিয়ে উত্তর
পশ্চিম থেকে দক্ষিণ পূর্বে
12. ব্রক্ষপুত্র নদের গতি পরিবর্তিত হয় – ১৭৮৭
সালের ভূমিকম্পে
13. যমুনা নদীর শাখা নদী – ধলেশ্বরী
14. ধলেশ্বরী নদীর শাখা নদী – বুড়িগঙ্গা
15. যমুনা নদীর উপনদী সমূহ – ধরলা, তিস্তা,
করতোয়া, আত্রাই
16. সুরমা ও কুশিয়ারা নদী মিলনে উৎপত্তি – মেঘনা
নদী
17. সুরমা ও কুশিয়ার উৎপত্তি- আসামের বরাক নদী
নাগা- মণিপুর অঞ্চলে
18. সুরমা ও কুশিয়ারা নদী বাংলাদেশে প্রবেশ করে
– সিলেট জেলা দিয়ে
19. সুরমা ও কুশিয়ারা নদী মিলিত হয় – সুনামগঞ্জের
আজমিরিগঞ্জে এবং কালনী নামে দক্ষিণ পশ্চিমে
অগ্রসর হয়ে মেঘনা নাম ধারন করে
20. মেঘনা পুত্রের সাথে মিলিত হয় – ভৈরব
বাজারের কাছে

21. বুড়িগঙ্গা, ধলেশ্বরী, ও শীতলক্ষ্যা মেঘনার
সাথে মিলিত হয় – মুন্সিগঞ্জে
22. মেঘনার শাখা নদী – মুন, তিতাস, গোমতী,
বাউলাই।
23. বাংলাদেশের দক্ষিণ পূর্বাঞ্চলের প্রধান নদী
– কর্ণফুলী
24. কর্ণফুলি নদীর উৎপত্তি – লুসাই পাহাড়ে
25. কর্ণফুলির দৈর্ঘ্য – ৩২০ কি.মি
26. কর্ণফুলির প্রধান উপনদী – কাপ্তাই, হালদা, কাসালাং,
রাঙখিয়াং
27. বাংলাদেশের প্রধান সমুদ্র বন্দর – চট্টগ্রাম
কর্ণফুলির তীরে অবস্থিত
28. তিস্তা নদীর উৎপত্তি – সিকিমের পার্বত্য
অঞ্চল
29. তিস্তা নদী – ভারতের জলপাইগুড়ি ও দার্জিলিং
হয়ে ডিমলা অঞ্চল দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ
করে
30. তিস্তা নদীরর গতিপথ পরিবর্তিত হয় – ১৯৮৭
সালের বন্যায়
31. তিস্তা নদী মিলিত হয় – ব্রক্ষপুত্রের সাথে
32. তিস্তা নদীর দৈর্ঘ্য ও প্রস্থ – ১৭৭ কি.মি ও ৩০০
থেকে ৫৫০ মি.
33. বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চলের পানি নিষ্কাশনের
প্রধান উৎস – তিস্তা নদী
34. তিস্তা ব্যারেজ প্রকল্পটি নির্মিত হয় – ১৯৯৭-৯৮
সালে
35. মংলা বন্দরের দক্ষিণে – পশুর নদী
36. সাঙ্গু নদীর উৎপত্তি – আরাকান পাহাড়ে
37. সাঙ্গু নদী প্রবেশ করেছে – পার্বত্য
চট্টগ্রামের মধ্য দিয়ে
38. সাঙ্গু নদীর দৈর্ঘ্য – ২০৮ কি.মি
39. ফেনী নদীর উৎপত্তি – পার্বত্য ত্রিপুরায়
40. ফেনী নদী বঙ্গোপসাগরের পতিত হয় –
সন্দ্বীপের উত্তরে
41. বাংলাদেশ মায়ানমার সীমান্তে অবস্থিত – নাফ
নদী
42. নাফ নদীর দৈর্ঘ্য – ৫৬ কি.মি
43. মাতামুহুরী নদীর উৎপত্তি – লামার মাইভার
পর্বতে
44. মাতামুহুরী প্রবেশ করে – কক্সবাজারের
চকোরিয়ার পশ্চিম পাশ দিয়ে
45. মাতামুহুরী নদীর দৈর্ঘ্য – ১২০ কি.মি
46. ঢাকা – বুড়িগঙ্গার তীরে
47. চট্টগ্রাম – কর্ণফুলির তীরে
48. নারায়ণগঞ্জ – শীতলক্ষ্যার তীরে
49. সিলেট – সুরমা নদীর তীরে
50. কুমিল্লা – গোমতী নদীর তীরে অবস্থিত
51. কর্ণফুলি বহুমুখী পরিকল্পনা থেকে – ৬৪৪
কি.মি নৌ চলাচল করে
52. কর্ণফুলির পানি দিয়ে চাষাবাদ হচ্ছে – ১০ লক্ষ
একর জমিতে।
53. ভোলা জেলায় অবস্থিত- চর মানিক, চর জব্বার,
চর নিউটন, চর কুকুড়ি মুকড়ি, চর নিজাম, চর জংলী, চর
মনপুরা, চর ফয়েজ উদ্দিন।
54. ফেনী জেলায় অবস্থিত- মুহুরীর চর।
55. নোয়াখালী জেলায় অবস্থিত- চর শ্রীজনি, চর
শাহাবানী।
56. লক্ষ্মীপুর জেলায় অবস্থিত- চর
আলেকজান্ডার, চর গজারিয়অ।
57. চট্টগ্রাম জেলায় অবস্থিত- উড়িরর চর।
58. রাজশাহী জেলায় অবস্থিত- নির্মল চর



Share

চাকরির পরীক্ষার সকল আপডেট পেতে জয়েন করুন এখানে

click



  • এইমাত্র প্রকাশিত সকল চাকুরির সার্কুলার পেতে চান? Click Here (Topbdjobs.com)
এমন আরো পোস্ট পেতে আমাদের ফেসবুক গ্রুপে জয়েন করুন
Join

No comments:

Post a Comment

কিভাবে শুরু করবেন চাকরির পড়া,কোথা থেকে শুরু করবেন কি পড়বেন? দেখুন বিস্তারিত