Breaking

Wednesday, May 1, 2019

Govt Job Circular May 2019 মে মাসের সেরা চাকরির নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিগুলো দেখে নিন একনজরে

1.১৫৯৭ জন নিয়োগ দেবে সরকারি কর্মকমিশন


১৫৯৭ জনকে নিয়োগ দেবে বাংলাদেশ সরকারি কর্মকমিশন (বিপিএসসি)। এর মধ্যে ৯৬৭টি স্থায়ী ও ১৫৯টি অস্থায়ী পদ। বাকি ৪৭১টি পদের নিয়োগ স্থায়ী কিংবা অস্থায়ী যেকোনোটি হতে পারে। এগুলোর মধ্যে নবম গ্রেডের ৩৯৬টি, দশম গ্রেডের এক হাজার ১৯৭টি, ১১তম গ্রেডের তিনটি, ১২তম গ্রেডের একটি পদ আছে। ২১ এপ্রিল দৈনিক ইত্তেফাকের ১৩ নম্বর পৃষ্ঠায় এসংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়
Govt Job Circular May 2019


ইনস্ট্রাক্টর (বিজ্ঞান) পদে ২০ জন (১৪টি স্থায়ী এবং ছয়টি অস্থায়ী), ইনস্ট্রাক্টর (কৃষি) পদে ২৫ জন (১৯টি স্থায়ী এবং ছয়টি অস্থায়ী), ইনস্ট্রাক্টর (শারীরিক শিক্ষা) ৯ জন (তিনটি স্থায়ী এবং ছয়টি অস্থায়ী), ইনস্ট্রাক্টর (চারু ও কারুকলা) ১৮ (১২টি স্থায়ী ও ৬টি অস্থায়ী), সহকারী নেটওয়ার্ক ইঞ্জিনিয়ার ৬৪ জন (অস্থায়ী), বয়লার পরিদর্শক ২ জন (স্থায়ী), ডকুমেন্টেশন অফিসার একজন (স্থায়ী), সহকারী পরিচালক (খনি প্রকৌশল) একজন (স্থায়ী), সহকারী প্রকৌশলী (পুর)/উপজেলা সহকারী প্রকৌশলী ২০৮ জন (স্থায়ী); এ ছাড়া ২৫ জনকে ‘উপজেলা সহকারী প্রকৌশলী’ হিসেবে অস্থায়ী হিসেবে নেওয়া হবে।

সহকারী পরিচালক (তড়িত্) ৩ জন (অস্থায়ী), সহকারী প্রকৌশলী (পুর) ১৪ জন (স্থায়ী), সহকারী প্রগ্রামার একজন (স্থায়ী কিংবা অস্থায়ী), সহকারী রক্ষণাবেক্ষণ প্রকৌশলী ৩ জন (স্থায়ী/অস্থায়ী), সহকারী স্থপতি একজন (স্থায়ী), সিনিয়র কম্পিউটার অপারেটর একজন (অস্থায়ী), ম্যানেজার (প্রেস) একজন (স্থায়ী), উপসহকারী প্রকৌশলী (পুর) ১৭২ জন (স্থায়ী/অস্থায়ী), ব্যক্তিগত কর্মকর্তা ২৯ জন (স্থায়ী/অস্থায়ী), প্রশাসনিক কর্মকর্তা একজন (স্থায়ী/অস্থায়ী), প্রশাসনিক কর্মকর্তা ২৪ জন (স্থায়ী), ব্যক্তিগত কর্মকর্তা ২৩ জন (স্থায়ী), সুপারিনটেনডেন্ট তিনজন (স্থায়ী), ক্যামেরাম্যান (মুভি) একজন (স্থায়ী), ক্যামেরাম্যান (স্টিল) একজন (স্থায়ী), আর্টিস্ট একজন (স্থায়ী), অ্যাসিস্ট্যান্ট ডিজাইনার কাম কোয়ালিটি কন্ট্রোল অফিসার একজন (স্থায়ী), রিসোর্স শিক্ষক ৪৫ জন (স্থায়ী), হিয়ারিং এইড টেকনিশিয়ান (জাতীয় বিশেষ শিক্ষা কেন্দ্র) ২ জন (স্থায়ী)।

টিচিং এইড টেকনিশিয়ান (জাতীয় বিশেষ শিক্ষাকেন্দ্র) একজন (স্থায়ী), উপসহকারী প্রকৌশলী (পূর্ত) একজন (স্থায়ী), উপসহকারী প্রকৌশলী (পুর) ১৭২ জন (স্থায়ী/অস্থায়ী), উপসহকারী প্রকৌশলী বা নকশাকার (উপসহকারী প্রকৌশলী ২৬৩ জন (স্থায়ী), উপসহকারী প্রকৌশলী (তড়িত্) ২৫ জন (স্থায়ী/অস্থায়ী), অ্যাস্টিমেটর (তড়িত্) ৭ জন (অস্থায়ী), নকশাকার (ড্রাফম্যান) ২২ জন (স্থায়ী/অস্থায়ী), ডিপ্লোমা নার্স ৩২ জন (অস্থায়ী), উপসহকারী প্রকৌশলী (ডিলিং প্রকৌশল) ১৩ জন (স্থায়ী), ডাটা এন্টি বা কন্ট্রোল সুপারভাইজার একজন (অস্থায়ী), সিনিয়র টেকনিশিয়ান ৭ জন (স্থায়ী), পরীক্ষণ বিদ্যালয়ের শিক্ষক ৩২৯ জন (স্থায়ী), সিনিয়র ইনস্ট্রাক্টর (ট্রেড) [বৃত্তিমূলক, বাণিজ্যিক, শিল্প ও নকশা শাখা] একজন (স্থায়ী)।


সিনিয়র ইনস্ট্রাক্টর (ট্রেড) [হস্তশিল্প ও সমজাতীয় প্রশিক্ষণ] একটি স্থায়ী পদ, সিনিয়র ইনস্ট্রাক্টর (ট্রেড) [দপ্তর বিজ্ঞান শাখা] একজন (স্থায়ী), রক্ষণাবেক্ষণ তত্ত্বাবধায়ক একজন (স্থায়ী)।



আবেদনের যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতা

বেশির ভাগ পদের ক্ষেত্রেই পদের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে স্নাতক ও স্নাতকোত্তরে দ্বিতীয় শ্রেণি চাওয়া হয়েছে। বয়স চাওয়া হয়েছে সর্বোচ্চ ৩০ বছর (১ এপ্রিল ২০১৯ তারিখে)। শুধু ‘ম্যানেজার (প্রেস) পদের জন্য বয়স চাওয়া হয়েছে সর্বোচ্চ ৩৩ বছর, তবে বিভাগীয় প্রার্থীদের ক্ষেত্রে ৩৫ বছর পর্যন্ত শিথিলযোগ্য।



আবেদন অনলাইনে

শিক্ষাগত যোগ্যতা অনুযায়ী এক বা একাধিক পদের জন্য আবেদন/রেজিস্ট্রেশন করা যাবে। একাধিক পদের জন্য রেজিস্ট্রেশন করলে প্রতিটি পদের জন্য আলাদা আলাদা ফি জমা দিতে হবে।

bpsc.teletalk.com.bd ওয়েবসাইটে গিয়ে নির্ধারিত আবেদনপত্র (বিপিএসসি-5A) পূরণ করে অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন করে ফি জমা দিতে হবে।



অনলাইনে আবেদন ও ফি জমা দেওয়ার প্রক্রিয়া এরই মধ্যে শুরু হয়েছে, চলবে ২৭ মে ২০১৯ সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত। আবেদনের ৭২ ঘণ্টার মধ্যে টেলিটক প্রিপেইড সংযোগ থেকে এসএমএসের মাধ্যমে ফি জমা দিতে হবে।



বাছাই পরীক্ষা

নবম, দশম, ১১তম, ১২তম গ্রেডের এবং নন-টেকনিক্যাল, টেকনিক্যাল বা প্রফেশনাল পদের জন্য আবেদনকারী প্রার্থীর সংখ্যা এক হাজারের বেশি হলে লিখিত পরীক্ষার আগে ১০০ নম্বরের এমসিকিউর মাধ্যমে বাছাই পরীক্ষা নেওয়া হবে। এ ধাপে ১০০টি প্রশ্ন থাকবে। প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য ০.৫০ নম্বর করে কাটা যাবে। সময় এক ঘণ্টা।

নন-টেকনিক্যাল পদের পরীক্ষায় বাংলায় ২৫, ইংরেজিতে ২৫, সাধারণ জ্ঞানে (বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়াবলি) ২৫ এবং গণিত ও দৈনন্দিন বিজ্ঞান বিষয়ে ২৫ নম্বর করে (মোট ১০০) থাকবে।


আর টেকনিক্যাল বা প্রফেশনাল পদের পরীক্ষায় বাংলায় ২০, ইংরেজিতে ২০, সাধারণ জ্ঞানে (বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়াবলি) ২০, সংশ্লিষ্ট টেকনিক্যাল বা প্রফেশনাল বিষয়ে ৪০ নম্বরের (মোট ১০০) প্রশ্ন থাকবে। এ পরীক্ষায় একটি নির্দিষ্ট পাস নম্বর ধরা হয়। পাস করা প্রার্থীরাই লিখিত পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবেন।



লিখিত পরীক্ষা

নবম, দশম, ১১তম, ১২তম গ্রেডের এবং নন-টেকনিক্যাল, টেকনিক্যাল বা প্রফেশনাল পদের লিখিত পরীক্ষায় ২০০ নম্বরের প্রশ্ন হবে, সময় ৪ ঘণ্টা। টেকনিক্যাল বা প্রফেশনাল প্রার্থীদের ক্ষেত্রে বাংলায় ৪০, ইংরেজিতে ৪০, সাধারণ জ্ঞানে ৪০ এবং প্রাসঙ্গিক টেকনিক্যাল বা প্রফেশনাল বিষয়ে ৮০ নম্বর; আর নন-টেকনিক্যাল প্রার্থীদের বেলায় বাংলায় ৫০, ইংরেজি ৫০, সাধারণ জ্ঞানে ৪০ নম্বর করে থাকবে। গণিত ও মানসিক দক্ষতা বিষয়ের ওপর ৬০ নম্বরসহ ২০০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষা হবে।

নবম গ্রেডের টেকনিক্যাল বা প্রফেশনাল প্রার্থীদের পাস করতে হলে ৪৫ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

টেকনিক্যাল বা প্রফেশনাল প্রার্থী ৩০ শতাংশ না পেলে পাস ধরা হবে না। লিখিত বা ব্যাবহারিক (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) পরীক্ষায় পাস করা প্রার্থীদের পদভেদে ৫০-১০০ নম্বরের মৌখিক পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে। প্রার্থীকে লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় আলাদা আলাদাভাবে পাস করতে হবে। মৌখিক পরীক্ষায় প্রার্থীকে ৪০ শতাংশ নম্বর পেয়ে পাস করতে হবে।



বেতন ও অন্যান্য সুবিধা

জাতীয় বেতন স্কেল (২০১৫) অনুযায়ী নবম গ্রেডে আবেদনকারী প্রার্থী নিয়োগপ্রাপ্ত হলে ২২ হাজার থেকে ৫৩ হাজার ৬০ টাকা বেতন পাবেন। দশম গ্রেডে আবেদনকারী প্রার্থী ১৬ হাজার থেকে ৩৮ হাজার ৬৪০ টাকা। ১১তম গ্রেডে আবেদনকারী প্রার্থীরা ১২ হাজার ৫০০ থেকে ৩০ হাজার ২৩০ টাকা বেতন পাবেন। ১২তম গ্রেডে আবেদনকারী প্রার্থী ১১ হাজার ৩০০ থেকে ২৯ হাজার ৩০০ টাকা বেতন পাবেন। এ ছাড়া বিধি অনুসারে অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা পাবেন।



♦ নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির পাশাপাশি বিস্তারিত তথ্য ও দিকনির্দেশনা পাওয়া যাবে সরকারি কর্মকমিশনের (বিপিএসসি)

ওয়েবসাইটে : Link

সরাসরি লিংক :Link



♦ অনলাইনে আবেদন ফরম পূরণ, ফি জমা দেওয়ার নিয়মসহ দরকারি নির্দেশনা জানা যাবে এই লিংক থেকে—

Link






2. ৯৮৪ জনকে চাকরি দেবে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর

Govt Job Circular May 2019



মত্স্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অধীনে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর রাজস্ব খাতে ৬১০ এবং প্রাণিসম্পদ ও ডেইরি উন্নয়ন প্রকল্পে ৩৭৪ জনকে নিয়োগ দেওয়া হবে। রাজস্ব খাতে লোকবল নিয়োগের বিজ্ঞপ্তিটি ২৫ এপ্রিল জনকণ্ঠে এবং প্রাণিসম্পদ ও ডেইরি উন্নয়ন প্রকল্পের বিজ্ঞপ্তিটি ২৪ এপ্রিল যুগান্তরে প্রকাশ করা হয়

পদ ও যোগ্যতা : প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের রাজস্ব খাতে ভিএফএ পদে ২৬৯ জন, কম্পাউন্ডার পদে ৭০ জন, পোল্ট্রি টেকনিশিয়ান পদে ৯ জন, এফএ (এ/আই) পদে ২৬২ জন নিয়োগ পাবে। বিজ্ঞান বিভাগ থেকে এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় পাস হলেই এসব পদের জন্য আবেদন করা যাবে।

অন্যদিকে প্রাণিসম্পদ ও ডেইরি উন্নয়ন প্রকল্পে (এলডিডিপি) অফিস সহকারী নেবে ৩ জন। যোগ্যতা থাকতে হবে দ্বিতীয় শ্রেণিতে স্নাতক পাস এবং অফিস সহকারী পদে ৩-৫ বছরের কাজের অভিজ্ঞতা। ড্রাইভার নেওয়া হবে ৩৬০ জন। এসএসসি পাস ও গাড়ি চালনায় ৩-৫ বছরের অভিজ্ঞতা। অফিস সহায়ক ৩ জন। একই কাজে ৩-৫ বছরের অভিজ্ঞতাসহ অষ্টম শ্রেণি পাস। ব্যক্তিগত সহকারী ২ জন। ৩-৫ বছরের অভিজ্ঞতাসহ দ্বিতীয় শ্রেণিতে স্নাতক পাস। অ্যাকাউন্ট্যান্ট ৩ জন। সংশ্লিষ্ট কাজে ৫ থেকে ৭ বছরের অভিজ্ঞতাসহ অ্যাকাউন্টিং/ফিন্যান্স অথবা ব্যবসায় প্রশাসনে স্নাতকোত্তর। ডাটা এন্ট্রি অপারেটর ৩ জন। এইচএসসিসহ একই কাজে ৩-৫ বছরের অভিজ্ঞতা। রাজস্ব খাতের প্রার্থীদের বয়স ২৭ মে তারিখে ১৮ থেকে ৩০ বছর। মুক্তিযোদ্ধা/শহীদ মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও শারীরিক প্রতিবন্ধীদের বেলায় ৩২ বছর। মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধার নাতি-নাতনিদের ক্ষেত্রে বয়স ৩০ বছর। প্রকল্পের ক্ষেত্রে অ্যাকাউন্ট্যান্ট পদের বেলায় বয়স সর্বোচ্চ ৪০ বছর এবং অন্য সব পদের প্রার্থীর বয়স ১৮ থেকে ৩২ বছর। রাজস্ব খাতে যেসব জেলার প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবে তা প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে পাওয়া যাবে। প্রকল্পের সব পদেই সারা দেশের যোগ্য প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবে।




আবেদন যেভাবে : রাজস্ব খাতে আবেদন করতে হবে অনলাইনে। প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের ওয়েবসাইট (www.dls.gov.bd) থেকে আবেদন ফরম ও ফরম পূরণের নিয়মাবলি পাওয়া যাবে।

আবেদন করতে হবে ২৭ মে বিকেল ৫টার মধ্যে।

নিয়োগ পরীক্ষার ফি বাবদ বাংলাদেশ ব্যাংক/সোনালী ব্যাংক থেকে ১০০ টাকার (অফেরতযোগ্য) মূল্যমানের ট্রেজারি চালানের স্ক্যান করা কপি আবেদনের সঙ্গে সংযুক্ত করতে হবে। প্রকল্পের ক্ষেত্রে আবেদন করতে হবে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের নির্ধারিত ফরমে।

আবেদন ফরমটি পাওয়া যাবে অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে। পূরণকৃত আবেদন ফরম ডাক বা কুরিয়ারে পৌঁছানোর শেষ তারিখ ১৩ মে বিকেল ৫টা পর্যন্ত।

আবেদনের সঙ্গে শিক্ষাগত যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতার সনদ, ৩ কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি, চারিত্রিক সনদ, নাগরিকত্ব সনদ এবং জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি গেজেটেড কর্মকর্তা কর্তৃক সত্যায়িত করে জমা দিতে হবে। এ ছাড়া ড্রাইভার পদের জন্য ড্রাইভিং লাইসেন্সের কপি (সত্যায়িত) জমা দিতে হবে।

সব পদের জন্যই ১০ টাকার ডাকটিকিট সংবলিত যোগাযোগের ঠিকানাসহ ফেরত খামও আবেদনের সঙ্গে যুক্ত করতে হবে।



পরীক্ষা পদ্ধতি : প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের প্রশাসন বিভাগ সূত্রে জানা যায়, অধিদপ্তরের রাজস্ব খাতে তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী নিয়োগ পরীক্ষা নেওয়া হবে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের নিয়োগবিধি অনুসারে। অর্থাত্ প্রার্থী বাছাই করা হবে লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার মাধ্যমে।

মোট ১০০ নম্বরের পরীক্ষা নেওয়া হবে। এর মধ্যে ৭০ নম্বরের লিখিত ও ৩০ নম্বরের মৌখিক পরীক্ষা হবে। অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, আবেদন গ্রহণের পর যাচাই-বাছাই করে যোগ্য প্রার্থীদের লিখিত পরীক্ষার সুযোগ দেওয়া হবে। লিখিত পরীক্ষার প্রবেশপত্র .িলড়ন.ফষং.মড়া.নফ-এই ওয়েবসাইট থেকে ডাউনলোড করে নিতে হবে। তা ছাড়া নির্বাচনী পরীক্ষার সময়সূচি, স্থানসহ দরকারি তথ্য এই ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে।

অন্যদিকে প্রাণিসম্পদ ও ডেইরি উন্নয়ন প্রকল্পে যোগ্য প্রার্থী বাছাইয়ে লিখিত, মৌখিক ও প্রযোজ্য ক্ষেত্রে ব্যাবহারিক পরীক্ষা নেওয়া হবে। সূত্র জানায়, নির্ধারিত সময়ে প্রাপ্ত আবেদন যাচাই-বাছাই করে নিয়োগ পরীক্ষার জন্য প্রেরকের ঠিকানায় চিঠি পাঠানো হবে।



পরীক্ষার প্রস্তুতি : নোয়াখালী জেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তরে ভেটেরিনারি ফিল্ড অ্যাসিস্ট্যান্ট (ভিএফএ) পদে কর্মরত মো. হোসেন এবং টাঙ্গাইল জেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তরের কম্পাউন্ডার পদে কর্মরত হাবিব জানান, সরকারি অন্যান্য পরীক্ষার মতোই লিখিত পরীক্ষায় বাংলা, গণিত, ইংরেজি ও সাধারণ জ্ঞান বিষয়ে প্রশ্ন করা হয়।

বিজ্ঞান বিভাগ ও কম্পিউটার বিষয় থেকেও প্রশ্ন আসে। প্রশ্ন করা হয় অষ্টম ও নবম-দশম শ্রেণির পাঠ্য বই থেকে। এ জন্য নবম-দশম শ্রেণির বোর্ড বই হতে পারে লিখিত পরীক্ষার প্রস্তুতির আদর্শ সহায়ক। তৃতীয় শ্রেণির পদে নিয়োগ পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতিমূলক বেশ কিছু বই পাওয়া যায়। সেগুলোও সহায়ক হতে পারে। প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরে এসব পদে কর্মরতদের সহযোগিতা নিয়েও ভালো প্রস্তুতি নেওয়া যাবে।


প্রকল্পের পরীক্ষার ক্ষেত্রেও বাংলা, গণিত, ইংরেজি ও সাধারণ জ্ঞানে প্রশ্ন করা হতে পারে।

ড্রাইভার পদের জন্য নেওয়া হবে ব্যাবহারিক পরীক্ষা। অন্যান্য পদে পদসংশ্লিষ্ট বিষয়েও প্রশ্ন করা হতে পারে। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের মৌখিক পরীক্ষায় পদসংশ্লিষ্ট বিষয়, সাধারণ জ্ঞান ও নিজের সম্পর্কেই বেশি প্রশ্ন করে থাকেন ভাইভা বোর্ডে উপস্থিত কর্তাব্যক্তিরা। তাই নিজেকে পুরো প্রস্তুত রাখতে হবে।



বেতন-ভাতা : ভিএফএ, কম্পাউন্ডার, পোল্ট্রি টেকনিশিয়ান ও এফএ (এ/আই) পদে নিয়োগপ্রাপ্তরা জাতীয় বেতন স্কেলের (২০১৫) ১৪তম গ্রেডে ১০২০০-২৪৬৮০ টাকা বেতন পাবেন।

প্রকল্পের ক্ষেত্রে অফিস সহকারী ৩৫ হাজার, ড্রাইভার ৩০ হাজার, অফিস সহায়ক ২০ হাজার, ব্যক্তিগত সহকারী ২৫ হাজার, অ্যাকাউন্ট্যান্ট ৩৫ হাজার এবং ডাটা এন্ট্রি অপারেটর ৩০ হাজার টাকা বেতন পাবেন।


3. স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর


পদ ও যোগ্যতা : কম্পিউটার অপারেটর ৪ জন। বিজ্ঞান বিভাগে স্নাতক (সম্মান) বা সমমান পাস। কম্পিউটার টাইপিং গতি প্রতি মিনিটে ইংরেজিতে ৩০ এবং বাংলায় ২৫ শব্দ। বেতনক্রম : ১১০০০-২৬৫৯০ টাকা। সাঁটলিপিকার-কাম-কম্পিউটার অপারেটর (স্টেনোগ্রাফার) ৩ জন। স্নাতক বা সমমান ডিগ্রি। সাঁটলিপিতে গতি প্রতি মিনিটে ইংরেজিতে ৭০ এবং বাংলায় ৪৫ শব্দ। কম্পিউটার টাইপিং গতি প্রতি মিনিটে ইংরেজিতে ৩০ এবং বাংলায় ২৫ শব্দ। বেতনক্রম : ১১০০০-২৬৫৯০ টাকা। উচ্চমান সহকারী ৫ জন। দ্বিতীয় শ্রেণির স্নাতক বা সমমান পাস। বেতনক্রম : ১০২০০-২৪৬৮০ টাকা।

অফিস সহকারী-কাম-কম্পিউটার অপারেটর ২৩ জন। এইচএসসি বা সমমান পাস। কম্পিউটার টাইপিং প্রতি মিনিটে বাংলায় ২০ এবং ইংরেজিতে ২৫ শব্দের গতি থাকতে হবে। বেতনক্রম : ৯৩০০-২২৪৯০ টাকা। ডাটা এন্ট্রি অপারেটর একজন। এইচএসসি বা সমমান। কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরে প্রতি মিনিটে বাংলায় ২০ এবং ইংরেজিতে ২০ শব্দের গতি। বেতনক্রম : ৯৩০০-২২৪৯০ টাকা।

ড্রাইভার একজন। অষ্টম বা সমমান পাসসহ হালকা বা ভারী যান চালনার বৈধ লাইসেন্সধারী এবং বাস্তব অভিজ্ঞতাসম্পন্ন। বেতনক্রম : ৯৩০০-২২৪৯০ টাকা। ৯ মে তারিখে বয়স ১৮-৩০ বছর। মুক্তিযোদ্ধা ও প্রতিবন্ধী কোটার ক্ষেত্রে ১৮-৩২ বছর। আবেদন ৯ মের মধ্যে।

যোগাযোগ : স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর (এইচইডি), প্রধান প্রকৌশলীর কার্যালয়, ১০৫-১০৬ মতিঝিল বা/এ, ঢাকা। ওয়েব : Linkসূত্র : যুগান্তর, ১৯ এপ্রিল, পৃষ্ঠা ১৭।


বাংলাদেশ পুলিশ কো-অপারেটিভ সোসাইটি


পদ ও যোগ্যতা : ইঞ্জিনিয়ার-কাম-ম্যানেজার একজন। বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং অথবা ১০ বছরের অভিজ্ঞতাসহ ডিপ্লোমা ইন ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং। বয়স ৩০-৪০ বছর।

ইলেকট্রিশিয়ান একজন। অষ্টম শ্রেণি পাসসহ ট্রেড কোর্সধারী। বয়স ২৫-৩০ বছর।

প্লাম্বার একজন। অষ্টম শ্রেণি পাস। বয়স ২৫-৩০ বছর।

ফায়ার ফাইটিং টিম লিডার একজন। এসএসসি বা সমমান। বয়স ৩০-৩৫ বছর। সব পদের বেতন আলোচনা সাপেক্ষে। আবেদনের শেষ তারিখ ৯ মে। যোগাযোগ : বাংলাদেশ পুলিশ কো-অপারেটিভ সোসাইটি লি., পলওয়েল ভবন, নয়াপল্টন, ঢাকা। সূত্র : ডেইলি সান, ২৩ এপ্রিল, পৃষ্ঠা ৪।


ওয়ালটন গ্রুপ


পদ ও যোগ্যতা : টেকনিশিয়ান (এসি) ৫০ জন। জেএসসি/এসএসসি/এইচএসসি/ ভোকেশনাল অথবা ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং (রেফ্রিজারেটর অ্যান্ড এসি) বা সমমান পাস। অভিজ্ঞদের অগ্রাধিকার। বয়স সর্বোচ্চ ৩০ বছর। মোটরসাইকেল চালানো এবং যেকোনো জেলায় কাজের মানসিকতা থাকতে হবে। আবেদন পাঠানো যাবে ৭ মে পর্যন্ত।

যোগাযোগ : সিএইচআরও, এইচআরএম অ্যান্ড অ্যাডমিন বিভাগ, ওয়ালটন করপোরেট অফিস, প্লট-১০৮৮, ব্লক-আই, সাবরিনা সোবহান পঞ্চম এভিনিউ, বসুন্ধরা আ/এ, ভাটারা, ঢাকা।

সূত্র : বাংলাদেশ প্রতিদিন, ২৩ এপ্রিল, পৃষ্ঠা ৭।


এসেনসিয়াল ড্রাগস কম্পানি লিমিটেড


পদ ও যোগ্যতা : ফোরম্যান মেকানিক্যাল একজন। এইচএসসি বা সমমানের পাসসহ সংশ্লিষ্ট ট্রেড কোর্সের সনদধারী। এ কাজে ১২ বছরের অভিজ্ঞতা। বয়স সর্বোচ্চ ৩৫ বছর।

ফোরম্যান ইলেকট্রিক্যাল একজন। এসএসসি বা সমমানের পাস। এ কাজে ৮ বছরের অভিজ্ঞতা।

বয়স সর্বোচ্চ ৩৫।

সিনিয়র টেকনিশিয়ান মেকানিক্যাল ২ জন। এইচএসসি বা সমমানের পাসসহ সংশ্লিষ্ট ট্রেড কোর্সের সনদধারী। সমকাজে ৭ বছরের অভিজ্ঞতা। বয়স সর্বোচ্চ ৩২ বছর।

সিনিয়র টেকনিশিয়ান ইলেকট্রিক্যাল ৪ জন। এসএসসি বা সমমানের পাস। সমকাজে ৫ বছরের অভিজ্ঞতা। বয়স সর্বোচ্চ ৩২ বছর। আবেদন ৬ মে পর্যন্ত। যোগাযোগ : এসেনসিয়াল ড্রাগস কম্পানি লিমিটেড, ৩৯৫-৩৯৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা।

সূত্র : ইত্তেফাক, ২৩ এপ্রিল, পৃষ্ঠা ৬।


পরিদর্শন ও নিরীক্ষা অধিদপ্তর


সাঁটলিপিকার-কাম-কম্পিউটার অপারেটর ৩ জন। এইচএসসি বা সমমান। সাঁটলিপিতে গতি প্রতি মিনিটে ইংরেজিতে ১০০ এবং বাংলায় ৭০ শব্দ। কম্পিউটার টাইপিংয়ে গতি প্রতি মিনিটে ইংরেজিতে ৩০ এবং বাংলায় ২৫ শব্দ। কম্পিউটারে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত। বেতনক্রম : ১১০০০-২৬৫৯০ টাকা।

অফিস সহকারী-কাম-কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক ৮ জন। এইচএসসি বা সমমান পাস। কম্পিউটার টাইপিংয়ে প্রতি মিনিটে বাংলায় ২০ এবং ইংরেজিতে ২০ শব্দের গতি থাকতে হবে। কম্পিউটারে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত। বেতনক্রম : ৯৩০০-২২৪৯০ টাকা।

রেকর্ডকিপার ৩ জন। এইচএসসি বা সমমান। বেতনক্রম : ৯৩০০-২২৪৯০ টাকা।

গাড়িচালক ২ জন। অষ্টম বা সমমান পাসসহ হালকা যান চালনার বৈধ লাইসেন্সধারী। বেতনক্রম : ৯৩০০-২২৪৯০ টাকা।


ফটোকপি অপারেটর একজন। এসএসসি বা সমমান পাস। ফটোকপি মেশিন চালনায় অভিজ্ঞ। বেতনক্রম : ৮৮০০-২১৩১০ টাকা।

ক্যাশ সরকার একজন। এসএসি বা সমমান পাস। বেতনক্রম : ৮৮০০-২১৩১০ টাকা।

অফিস সহায়ক ৯ জন। অষ্টম বা সমমান পাস। বেতনক্রম : ৮২৫০-২০০১০ টাকা।

নিরাপত্তা প্রহরী একজন। অষ্টম পাস। ১ আগস্ট ২০১৮ তারিখে বয়স ১৮ থেকে ৩০ বছর। মুক্তিযোদ্ধা ও প্রতিবন্ধী কোটার ক্ষেত্রে ১৮-৩২ বছর। অনলাইনে আবেদন ২১ মে পর্যন্ত। বেতনক্রম : ১১০০০-২৬৫৯০ টাকা।

যোগাযোগ : পরিদর্শন ও নিরীক্ষা অধিদপ্তর, শিক্ষা মন্ত্রণালয়, শিক্ষা ভবন, দ্বিতীয় ব্লক, ১৬ আবদুল গনি রোড, ঢাকা। ওয়েব : Link

সূত্র : ইত্তেফাক, ১৮ এপ্রিল, পৃষ্ঠা ৬।


বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশন


পদ ও যোগ্যতা : উপমহাব্যস্থাপক (জাহাজ মেরামত, ইঞ্জিনিয়ারিং/নটিক্যাল) ৩ জন। প্রথম শ্রেণির কম্পিটেন্সি সনদসহ (মোটর) সমুদ্রগ্রামী জাহাজে ৩ বছরের অভিজ্ঞতা। বয়স ৪০ বছর। বেতনক্রম : ৫২২০০-৭৪৩৪০ টাকা।

উপমহাব্যবস্থাপক (শিপ পার্সোনেল, নটিক্যাল/ইঞ্জিনিয়ারিং) একজন। প্রথম শ্রেণির কম্পিটেন্সি সনদসহ (ডেক/মোটর) সমুদ্রগামী জাহাজে ৩ বছরের অভিজ্ঞতা অথবা দ্বিতীয় শ্রেণির সম্মানসহ দ্বিতীয় শ্রেণির স্নাতকোত্তর এবং সংশ্লিষ্ট কাজে ৮ বছরের অভিজ্ঞতা। বয়স ৪০ বছর। বেতনক্রম : ৫২২০০-৭৪৩৪০ টাকা।

উপমহাব্যবস্থাপক (কার্গো সুপারভিশন অ্যান্ড অপারেশন) একজন। প্রথম শ্রেণির কম্পিটেন্সি সনদসহ (ডেক) সমুদ্রগামী জাহাজে ৩ বছরের অভিজ্ঞতা অথবা দ্বিতীয় শ্রেণির স্নাতকোত্তর এবং সংশ্লিষ্ট কাজে ৮ বছরের অভিজ্ঞতা। বয়স ৪০ বছর। বেতনক্রম : ৫২২০০-৭৪৩৪০ টাকা। আবেদন ২২ মে পর্যন্ত। যোগাযোগ : বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশন, বিএসসি ভবন, সল্টগোলা রোড, চট্টগ্রাম। ওয়েব : Link

সূত্র : বাংলাদেশ প্রতিদিন, ২৪ এপ্রিল, পৃষ্ঠা ২।

  • এইমাত্র প্রকাশিত সকল চাকুরির সার্কুলার পেতে চান? Click Here (Topbdjobs.com)
এমন আরো পোস্ট পেতে আমাদের ফেসবুক গ্রুপে জয়েন করুন
Join

No comments:

Post a Comment

কিভাবে শুরু করবেন চাকরির পড়া,কোথা থেকে শুরু করবেন কি পড়বেন? দেখুন বিস্তারিত